1. clients@www.dainikbangladesh71sangbad.com : DainikBangladesh71Sangbad :
  2. frilixgroup@gmail.com : Frilix Group : Frilix Group
  3. kaziaslam1990@gmail.com : Kazi Aslam : Kazi Aslam
বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৮:৩২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
জরুরী নিয়োগ চলছে জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল দৈনিক বাংলাদেশ ৭১ সংবাদ দেশের প্রতিটি বিভাগীয় প্রতিনিধি, জেলা,উপজেলা, স্টাফ রিপোর্টার, বিশেষ প্রতিনিধি, ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি, ক্যাম্পাস ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি বা সাংবাদিক নিয়োগ চলছে। সাংবাদিকতা সবার স্বপ্ন, আর সেই স্বপ্ন পূরণ করতে আপনাদেরকে সুযোগ করে দিচ্ছে দৈনিক বাংলাদেশ ৭১ সংবাদ দেখিয়ে দিন সাহসীকতার পরিচয়, অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সাংবাদিকতার বিকল্প নেই। আপনার আশপাশের ঘটনা তুলে দরুন সবার সামনে।হয়ে উঠুন আপনিও সৎ, সাহসী সাংবাদিক। দৈনিক বাংলাদেশ ৭১ সংবাদ পোর্টাল নিয়োগ এর নিদের্শনাবলী: ১/জীবন বৃত্তান্ত ( cv) ২/জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি। ৩/সদ্যতোলা পাসপোর্ট সাইজের ছবি ১কপি। ৪/সর্বনিম্ন এইচএসসি পাস/সমমান পাস হতে হবে। ৫/বিভিন্ন নেশা মুক্ত হতে হবে। ৬/নতুনদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ৭/স্মার্টফোন ও ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে। ৮/স্মার্টফোন ব্যবহারে পারদর্শী হতে হবে। ৯/দ্রুত মোবাইলে টাইপ করার দক্ষতা থাকতে হবে। ১০/বিভিন্ন স্থানে ভ্রমন এর মানসিকতা থাকতে হবে। ১১/সৎ ও পরিশ্রমী হতে হবে। ১২/অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই। ১৩/নারী-পুরুষ আবেদন করতে পারবেন। ১৪/রক্তের গ্রুপ যুক্ত করবেন। ১৫/স্থানীয় দের সাথে পরিচয় লাভ করতে হবে। ১৬/উপস্থিত বুদ্ধি, সঠিক বাংলা বানান, ও শুদ্ধ বাংলায় পারদর্শী হতে হবে। ১৭/ পরিশ্রমী হতে হবে যোগাযোগের জন্য ইনবক্সে মেসেজ করুন cv abuyousufm52@gmail.com দৈনিক বাংলাদেশ ৭১সংবাদ মোবাইল নং(01715038718)

শোভাচিমে চলছে কোরানা রুগিদের বেট সংকট।

Reporter Name
  • প্রকাশিত: রবিবার, ৪ এপ্রিল, ২০২১
  • ১৯৭ বার পড়া হয়েছে

মোঃ সিরাজুল হক রাজু স্টাফ রিপোর্টার।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে রোগী ভর্তির নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে।গত কাল শনিবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত এই হাসপাতালে ১১৬ জন করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন। যা করোনা মাহামারি শুরু থেকে সর্বোচ্চ বলে দাবি করছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে, ‘হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে রোগী ভর্তির হার বাড়লেও বাড়েনি সুযোগ সুবিধা। আইসিইউ সংকটের পাশাপাশি নেই পর্যাপ্ত সাধারণ বেডের ব্যবস্থাও। ওয়ার্ডের মেঝেতে ভর্তি থেকে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে নতুন রোগীদের।

আবার রোগীদের চিকিৎসা-সেবা নিশ্চিত করতে নেই পর্যাপ্ত জনবলের ব্যবস্থা। এমনকি চিকিৎসাও রয়েছেন প্রয়োজনের তুলনায় ৬০ ভাগ কম। ফলে করোনা এবং আইসোলেশনে থাকা রোগীদের চিকিৎসা সেবা দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে।

শেবাচিম হাসপাতাল থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ‘২০২০ সালের মার্চে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়। ওই মাসে ওয়ার্ডটিতে মৃত্যু হয় একজন আর মোট চিকিৎসা গ্রহণ করেন মাত্রা ৮ জন।

তবে তার পুরোটাই উল্টো চিত্র চলতি বছরের মার্চে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হতেই হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে রোগী ভর্তির হার কয়েক গুন বেড়ে যায়। গত মার্চ মাসে ওয়ার্ডটিতে ভর্তি থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেছেন ৩৫১ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ৩২ জনের।

২০২০ সালের মার্চে এই হাসপাতালের করোন ওয়ার্ডে মারা যায় ১ জন। রোগী ভর্তি ছিলো ৮জন। অথচ এই মার্চে করোনা ওয়ার্ডে মারা গেছে ৩২জন এবং রোগী ভর্তি ছিলো ৩৫১জন। আবার গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ওয়ার্ডে রোগী ভর্তির নতুন রেকর্ড সৃষ্টি হয়েছে। এমনকি শনিবার রোগী ভর্তির ক্ষেত্রেও রেকর্ড সৃষ্টি হয়।

পসিংখ্যানে দেখা যায়, ‘শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ওয়ার্ডটিতে মোট ১শত জন রোগী ভর্তি থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করেছে। গত কাল শনিবার বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত সেই সংখ্যা বেড়ে ১১৬ জনের দাঁড়ায়। অথচ করোনার শুরুতে ২৪ ঘন্টায় রোগী ভর্তির সংখ্যা ছিল সর্বোচ্চ ৭০-৮৫ জন পর্যন্ত। বর্তমানে ভর্তি রোগীর সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে বলেও জানিয়েছেন করোনা ওয়ার্ড সংশ্লিষ্টরা।

তারা জানিয়েছেন, ‘গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ওয়ার্ডে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজনের করোনা পজেটিভ এবং অপরজন উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। তাছাড়া গত ২৪ ঘন্টায় অর্থাৎ শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি হয় ২০ জন। এদের মধ্যে ১৯ জন আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং একজনের মৃত্যু হয়।

একই সময় করোনা পজেটিভ কোন রোগী ভর্তি না হলেও আক্রান্ত হয়ে পূর্বে থেকে চিকিৎসাধীন একজনের মৃত্যু হয়েছে। পাশাপাশি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুজন। সব মিলিয়ে বর্তমানে এ হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডের ইউনিটের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ৯৪ জন, করোনা ওয়ার্ডে ২২ জন চিকিৎসা গ্রহণ করছেন।

এদিকে, ‘সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, ‘হাসপাতালের করোনা ইউনিটটি পূর্বে থেকেই ১৫০ শয্যা উল্লেখ্য করে আসছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বাস্তবে শয্যা সংখ্যা রয়েছে ৮০টির মতো। যার মধ্যে ১২টি আইসিইউ বেড রয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দাবি মতে ১২টি আইসিইউ শয্যা সচল রয়েছে। তবে রোগীদের দাবি ভিন্ন। ৮টি আইসিইউ কার্যকর থাকলেও বাকিগুলোর কার্যক্ষমতা নেই। তার মধ্যেই রোগী ভর্তি রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

অপরদিকে, ‘শয্যার মতোই সংকটে রয়েছে জনবলের। হাসপাতালের আইসিইউতে তিন শিফটে মাত্র তিনজন চিকিৎসক রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে থাকেন। আবার করোনা ওয়ার্ডে তিন শিফটে দায়িত্ব পালন করেন পাঁচজন করে মোট ১৫ জন চিকিৎসক। যা প্রয়োজনের তুলনায় ৪০ ভাগ কম বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. আব্দুর রাজ্জাক।

আবার নার্সের সংখ্যটও রয়েছে অনেক। বিশেষ করে চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর অভাব সব থেকে বেশি। হাসপাতালের সরকারি কোন কর্মচারীরই দায়িত্ব পালন করছেন না ওয়ার্ডটিতে। বহিরাগতদের দিয়ে পেটে ভাতে নামমাত্র রোগী সেবার ব্যবস্থা করা হয়েছে। অভিযোগ উঠেছে সরকারি কর্মচারীদের দায়িত্ব পালনের জন্য বলা হলেও তারা ক্ষমতা বলে তা এড়িয়ে যাচ্ছেন।

আলাপকালে হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘যে হারে রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে করে ভবিষ্যত খুবই ভয়াবহ হয়ে দাঁড়াতে পারে। এমন পরিস্থিতি সকলের সহযোগিতার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright © 2020 DainikBangladesh71Sangbad
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )